বাংলাদেশ , বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম জাতীয় শোক দিবস পালিত

লেখক : Administrator | প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৪ ১৬:০২:৪১

মুক্তখবর24.কমঃ  ডেক্সঃ নিউজঃ  বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় শোক দিবস পালিত।
বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন এর উদ্যোগে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নগরীর নেভী কনভেনশন হলে শুক্রবার রক্তদান কর্মসূচী এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                              বিপিসি’র পরিচালক মোঃ সরওয়ার আলম এর সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সচিব ও বিপিসি’র চেয়ারম্যান মোঃ সামছুর রহমান। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ বিভাগের ডিন প্রফেসর ড.ফরিদ উদ্দিন আহামেদ, বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল চট্টগ্রামের, পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) খন্দকার আরিফুল আলম। এতে বিপিসি ও এর বিভিন্ন অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের সর্বস্তরের কর্মকর্তা কর্মচারী সহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন দফতরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও মুক্তিযোদ্ধাসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বিপিসি’র চেয়ারম্যান মোঃ সামছুর রহমান বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে আজ বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের সৃষ্টি হত না। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কাল রাতে বাঙ্গালি জাতির মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-কে স্ব-পরিবারে হত্যা করা হয়। ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় সেই দিন তার পরিবারে ছয় বছরের শিশু থেকে শুরু করে অন্তসত্ত্বা নারীও সেদিন ঘাতকের বুলেট থেকে রেহাই পায়নি। এই হত্যাকান্ড স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসে ‘সবচেয়ে অশ্রুভেজা ও কলঙ্কময়’ অধ্যায়।                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                            হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালিকে হারানোর বেদনায় সমগ্র বাঙালি জাতির সাথে আমরাও শোকাহত। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করে স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি চেয়েছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে ভূলুণ্ঠিত করতে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও খুনিরা তার আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি। আজও বাংলার ঘরে ঘরে তাঁর আদর্শ প্রদীপ হয়ে জ্বলছে। বঙ্গবন্ধুকে কোন বিশেষ দিবসে স্মরন করলে আমাদের ঋণ শোধ হবে না।                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                   তাঁর আদর্শকে হৃদয়ে ধারণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশে আজ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। তিনি আরো বলেন জাতির জনক যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, আমাদের দায়িত্ব হবে সেই লক্ষ্যে কাজ করে জাতির জনকের স্বপ্ন পূরণ করা। তাহলেই তার বিদেহী আত্মা শান্তি পাবে।
প্রধান আলোচক প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি নাম, একটি ইতিহাস।                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                           ৫২-এর ভাষা আন্দোলনে তিনি ছিলেন সংগ্রামী নেতা। বাঙালি জাতির মুক্তি সনদ ছয় দফার প্রণেতাও ছিলেন তিনি। ’৭০-এর নির্বাচনে অংশ নিয়ে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগকে এ দেশের গণমানুষের আশার প্রতীকে পরিণত করেন। বাঙ্গালি জাতির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ পুরুষ বঙ্গবন্ধুর অমর কীর্তি এ স্বাধীন বাংলাদেশ।
এছাড়া, আলোচনা সভায় বক্তব্য প্রদান করেন বিপিসি’র উর্দ্ধতন মহাব্যবস্থাপক আবু হানিফ, মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর সাইফুল্লাহ আল খালেদ, পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ মাসুদুর রহমানসহ অন্যান্যরা বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য দিক নিয়ে আলোচনা করেন।
___________

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন