বাংলাদেশ , শুক্রবার, ৭ মে ২০২১

ঝুকিঁপুর্ণ সেতুর চারটি পিলারের গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে রাউজানে

লেখক : AjKMuSbt | প্রকাশ: ২০২০-০২-১৮ ১৮:২৮:১৩

রাউজানে চারটি সেতুর পিলারের গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে ঝুকিঁপুর্ণ হয়ে উঠেছে। যেকোন সময় প্রানঘাতি দূর্ঘটনা ঘটার শংকা রয়েছে।

জানা যায়, রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের আমির হাটের পাশে দোস্ত মোহাম্মদ চৌধুরী সড়কে সর্তা খালের উপর নির্মিত সেতুর নিচের পিলারের গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে সেতুটি বিপদজনক হয়ে পড়েছে ।

বিপদজনক সেতুর উপর দিয়ে প্রতিদিন শত জীপ, ট্রাক, সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করছে। রাউজান উপজেলার চিকদাইর ইউনিয়ন ও নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের সীমনায় ঈশা খা দিঘির পুর্ব পাশে সর্তার খালের উপর নির্মিত হজরত শাহছুপি নুরুল  হক শাহ সেতর নিচের পিলারের গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে সেতুটি বিপদজনক অবস্থায় রয়েছে ।

চিকদাইর ইউনিয়নের দক্ষিন সর্তা থেকে নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের নতুন হাট  সীমানায় সতা খালের উপর নির্মিত হজরত আকবর শাহ সেতু । আকবর শাহ সেতুর নিচের গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে সেতুটি ও বিপদজনক অবস্থায় পড়েছে ।

একই ভাবে চিকদাইর ইউনিয়নের দক্ষিন সর্তা ও গহিরা ইউনিয়নের আতুরনির দোকান সংলগ্ন এলাকায় সর্তা খালের উপর নির্মিত সৃষ্টি মহাজন সেতু । সৃষ্টি মহাজন সেতুর গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে  সেতুটি বিপদজনক অবস্থায় পড়েছে ।

সরেজমিনে পরির্দশন কালে এলাকার লেঅকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে । সর্তা খালের চারটি ব্রীজের পাশ থেকে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করায় ব্রীজের নিচের পিলারের গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে চারটি ব্রীজ ঝুকিঁপুণ হয়ে পড়েছে ।

ব্রীজগুলো দিয়ে প্রতিদিন শত শত জীপ, ট্রাক, সিএনজি আটোরিক্সা চলাচল করে। হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন চারটি ঝুকিঁপুর্ণ ব্রীজ দিয়ে জীবনের ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে।

সরেজমিনে পরিদর্শন কালে দেখা যায় চিকদাইর ইউনিয়ন ও নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের নতুন হাট সীমনায় হজরত আকবর শাহ সেতুর পাশে সর্তার খালে এসকেভেটার দিয়ে খাল থেকে মাটি কেটে মাটি স্তুপ করা হচ্ছে ।

সর্তার খাল থেকে এসকেভেটার দিয়ে কাটা মাটি গুলো এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তিরা প্রতিদিন ট্রাক যোগে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রয় করছে বলে এলাকার লোকজন তাদের নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান ।

এ ব্যাপারে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগের কাছে জানতে চাইলে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন সর্তার খাল থেকে অবৈধভাবে বালূ উত্তোলন করা অভিযাণ চালিয়ে বন্দ্ব করে দেওয়া হয়েছে। সর্তার খাল থেকে অবৈধভাবে কোন স্থানে বালু উত্তোলন ও খাল থেকে মাটি কেটে মাটি বিক্রয় করা হলে তাদের বিরুদ্বে অভিযাণ চালানো হবে ।

Print Friendly, PDF & Email