বাংলাদেশ , শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১

দিল্লির দাঙ্গা: নর্দমায় মিলল আরও তিনজনের লাশ

লেখক : AjKMuSbt | প্রকাশ: ২০২০-০৩-০১ ১৭:০৭:৩৯

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের মুসলিম বিদ্বেষী দাবানল কেড়ে নিয়েছে মানুষের প্রাণ, কেড়েছে অসাম্প্রদায়িকতার স্মৃতিচিহ্ন। দাঙ্গার ক্ষত যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চলের মতো করে রেখেছে দিল্লিকে। রক্তপীপাসুদের হানায় আতঙ্কিত মানুষ বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়েছিলেন। এখনও তাদের অনেকেই নিজ বাড়িতে ফিরে যেতে পারেননি। বাড়ি-ঘরও দাঁড়িয়ে আছে পুড়ে যাওয়া কঙ্কালের মতো।

এর মাঝেই রোববার দিল্লির অন্তত দুটি এলাকার পৃথক খাল থেকে আরও তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রায় চারদিন ধরে চলা দিল্লির দাঙ্গায় অন্তত ৪৩ জন মারা গেছেন। নতুন করে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করায় সেই সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ৪৬ জনে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, উত্তরপূর্ব দিল্লির সহিংসতায় বিধ্বস্ত এলাকা থেকে রোববার আরও তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের লাশ পাওয়া গেছে দিল্লির গোকালপুরির একটি খালে। এছাড়া অপর দুজনের মরদেহ মিলেছে ভাগীরথী বিহার খালে।

গত রোববার দিল্লির উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বেশ কয়েকটি এলাকায় একযোগে হামলা চালায় উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। তাদের এই হামলার নিশানায় ছিল মুসলিম জনগোষ্ঠী, তাদের বাড়িরঘর এবং মসজিদ। মুসলিমদের পিটিয়ে হত্যার পাশাপাশি, বাসা-বাড়ি, দোকান, মসজিদে অগ্নিসংযোগ এবং লুটপাট চালায় হামলাকারী কট্টরপন্থী বিজেপি ও রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবকের সদস্যরা।

দেশটির বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনবিরোধী বিক্ষোভকে দাঙ্গায় রুপ দেয়া বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের হামলায় আড়াই শতাধিক মানুষ আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে দিল্লির গুরু তেজ বাহাদুর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাদের মধ্যে অন্তত ৪২ জনকে মৃত ঘোষণা করা হয়। এদের মধ্যে দেশটির পুলিশের এক সদস্যও রয়েছেন।

বিজেপি-আরএসএস সমর্থকদের চারদিনের নারকীয় সশস্ত্র তাণ্ডবে আড়াইশর বেশি মানুষ আহত হয়। আহতদের মধ্যে পুলিশের ১১ সদস্যও রয়েছেন। ২৪ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সফরে আসার পর দিল্লিতে নাগরিকত্ব আইনবিরোধীদের সঙ্গে বিজেপি-আরএসএস সমর্থকদের সংঘর্ষ শুরু হয়। সশস্ত্র এই তাণ্ডব দ্রুত নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় দিল্লির হাইকোর্ট গত সোমবার মাঝ রাতে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন। কিন্তু পুলিশকে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশদাতা বিচারককে পরদিন হরিয়ানায় বদলি করা হয়।

সোমবার থেকে ভারতের পার্লামেন্টে বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে। এই অধিবেশনে দেশটির প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেস দিল্লির দাঙ্গায় উসকানি এবং নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার দায়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর পদত্যাগ দাবি করতে পারেন বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email