বাংলাদেশ , শুক্রবার, ৭ মে ২০২১

গার্মেন্টস শ্রমিক রাতেই ঢাকা ছুটছে রাস্তায় অন্য বিপদ”

লেখক : AjKMuSbt | প্রকাশ: ২০২০-০৪-২৬ ১৯:২৭:২৮

গার্মেন্টস খুলছে এমন খবরে রাতেই দলে দলে ঢাকায় যাওয়ার চেষ্টা করছেন গার্মেন্টস কর্মীরা। তবে, পু’লিশ আ’ট’কে দিচ্ছে গার্মেন্টস কর্মীদের। পু’লিশ বলছে নির্দেশনা না থাকায় তাদের আ’ট’কে দেয়া হচ্ছে।

 

এদিকে গার্মেন্টস কর্মীরা বলছে আগামী কাল থেকে গার্মেন্টস খুলবে বলে তাদের জানানো হয়েছে। শনিবার (২৫ এপ্রিল) বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত ময়মনসিংহ পাটগুদাম ব্রীজ মোড় দেখা যায় ঢাকা মুখি গার্মেন্টস কর্মীদের।

 

 

পু’লিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার (২৫ এপ্রিল) সকাল থেকে গার্মেন্টস কর্মীরা ঢাকার দিকে যেতে থাকে। বিকেলে ঢাকামুখী গার্মেন্টস শ্রমিকদের স্রোত বাড়তে থাকলে পাটগুদাম ব্রিজ এলাকায় তাদের আ’ট’কে দেয় পু’লিশ। পরে তাদের বাড়ির দিকে ফিরিয়ে দেয়া হয়। তবে গার্মেন্টস শ্রমিকরা ফিরে না গিয়ে চর কালিবাড়ি এলাকায় রাস্তার পাশে অবস্থান করেন।

 

পু’লিশের বাঁ’ধায় ফিরে যাওয়া গার্মেন্টসকর্মীরা ডিবিএল ও মন্ডল গ্রুপের ফ্যাক্টরীতে কাজ করেন বলেন জানান। তারা জানান, আগামীকাল রবিবার (২৬ এপ্রিল) সকাল সাতটায় তাদের অফিসে যোগদান করতে বলা হয়েছে। তাই লকডাউনের মধ্যেই চাকুরী বাচাতে তারা ঝুঁ’কি নিয়ে ঢাকায় রওয়ানা দিয়েছেন। কিন্তু পু’লিশ তাদের যেতে দিচ্ছে না।

 

তারা বলেন, আমাদের ফোন করে বলা হয়েছে রবিবার (২৬ এপ্রিল) সকাল ৭টার মধ্যে গার্মেন্টস খুলবে। সকাল ৭টার আগেই কাজে যোগদান করতে হবে। আম’রা যদি সঠিক সময়ে না যায় চাকরি চলে যাবে।

 

গাজিপুরের ন্যাচারাল ডেনিমস কর্মী সুমি আক্তার বলেন, বিকালে আমাকে ফোন করে বলা হয়েছে আগামীকাল থেকে গার্মেন্টস খোলা। যে ভাবেই সকাল ৭ টার মধ্যে উপস্থিত থাকতে হবে। না হলে চাকরী থাকবে না। তাই চাকরী বাঁ’চাতে রাতেই রওনা হয়েছি। গাজীপুরের ডিজাইন টেক্স গার্মেন্টসের কোয়ালিটি এসিউরেন্স ম্যানেজার হারুনুর রশীদ বলেন, তাদের কারখানার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ গার্মেন্টস খোলার বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন। এ কারণে তাদের কারখানার জ্যাকেট শাখার শ্রমিকদের কাজ যোগদানের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

 

ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থা’না ওসি মাহমুদুল ইস’লাম বলেন, আমাদের কাছে গার্মেন্টস খোলার কোন নির্দেশনা নেই। এ কারণে শ্রমিকদের যেতে আম’রা বাঁ’ধা দিচ্ছি। রাতেও কিছু শ্রমিক সিএনজি, পিকআপে করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছে। তবে, নির্দেশনা পেলেই গার্মেন্টস কর্মীদের যেতে দেয়া হবে।

 

এদিকে করো’না ভাই’রাসের ঝুঁ’কির মধ্যেই রবিবার (২৬ এপ্রিল) থেকে ধাপে ধাপে খুলছে গার্মেন্টস কারখানা। শনিবার (২৫ এপ্রিল) ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইতে এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

 

এর পর সন্ধ্যায় গার্মেন্টস কারখানা খোলার বিষয়টি অবহিত করে তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিবকে চিঠি পাঠিয়েছেন। একই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পোশাক শিল্প মালিকদের অ’পর সংগঠন বিকেএমইএ। এর পর শ্রম মন্ত্রণালয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে কারখানা চালু করার জন্য একটি নির্দেশনা জারি করে।

Print Friendly, PDF & Email