বাংলাদেশ , সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১

ভূরুঙ্গামারীতে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইনের মেয়াদ শেষ না হতেই শর্ত সাপেক্ষে বাড়ি ফিরে গেলেন ১৪ ব্যক্তি মাঈদুল ইসলাম মুকুল,ভূরুঙ্গামারী

লেখক : AjKMuSbt | প্রকাশ: ২০২০-০৫-০২ ১৬:৪৭:৪৭

(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ ভূরুঙ্গামারী সরকারী কলেজে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কোয়ারান্টাইনে থাকা মোট ৩৭ ব্যক্তির মধ্যে ১৪ জনকে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই শর্ত সাপেক্ষে বাড়ি ফিরে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি।

 

১ম ধাপে প্রেরিত নমুনা পরিক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসায় শনিবার (২ মে) দুপুরে উক্ত ১৪ জনকে বাড়ি ফেরার অনুমতি দেয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২৪ এপ্রিল প্রথম ধাপে গাজিপুর ভাওয়াল থেকে এসব ব্যক্তি ভূরুঙ্গামারীতে প্রবেশ করে। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইনে থাকা বাকি ২৩ জনের মধ্যে থেকে দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ এএসএম সায়েম।

 

ধাপে ধাপে সকলের নমুনা সংগ্রহ করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি তবে ১৪ দিন ভালোয় ভালোয় কেটে গেলে সেটার আর প্রয়োজন হবে না। কোয়ারান্টাইনের ১৪ দিন মেয়াদ শেষ না করেই তাদেরকে ছেড়ে দেয়ার বিষয়ে ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি মুহাঃ আতিয়ার রহমান বলেন, ৮ দিন তারা আমাদের প্রত্যক্ষ হেফাজতে ছিলেন বাকি ৬ দিন তারা নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারান্টাইনে থাকবেন এই শর্তে তাদেরকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইন থেকে মুক্ত করা হয়েছে। তাদের পূর্ণাঙ্গ বায়োডাটা আমাদের সংরক্ষণে আছে। আমরা তাদেরকে সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রাখবো।

 

এসময় তিনি ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চল থেকে আসা ব্যক্তিদের ব্যাপারে পাড়া প্রতিবেশিসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরকে সজাগ থাকারও পরামর্শ দেন। এব্যাপারে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফিরুজুল ইসলাম জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী নমুনা টেস্টের ফলাফল নেগেটিভ হলে মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্বে শর্ত সাপেক্ষে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের বাড়ি যাওয়ার অনুমতি আছে। যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করেই তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

 

তবে বাকি দিনগুলোর হোম কোয়ারান্টাইন নিশ্চিত করার জন্য তাদেরকে কঠোর নজরদারির মধ্যে রাখা হবে।

Print Friendly, PDF & Email