বাংলাদেশ , রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

কালীগঞ্জে আলোর দিশারী রক্তদান সংগঠনের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উৎযাপন তৈয়বুর রহমান

লেখক : AjKMuSbt | প্রকাশ: ২০২০-১১-১৪ ১৯:০২:০৬

কালীগঞ্জে আলোর দিশারী রক্তদান সংগঠনের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উৎযাপন তৈয়বুর রহমান, কালীগঞ্জ

(গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালীগঞ্জে আলোর দিশারী রক্তদান সংগঠন এর দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সারা দেশের ৫ শতাধিক রক্তদাতা স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে দিন ব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে।

শুক্রবার(১৩ নভেম্বর) সকালে ‘একের রক্ত অন্যের জীবণ এতেই হোক আত্মার বাঁধন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে আলোর দিশারী সংগঠনের ২য় বর্ষ পূতি উপলক্ষে সারাদেশের ৫ শতাদিক রক্তদাতা স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে একটি র্যালি এলাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে র‌্যালি শেষে স্বেচ্ছাসেবীগন আজমতপুর স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে আলোর দিশারী রক্তদান সংগঠনের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি মিলনমেলায় অংশগ্রহন করেন।

আলোর দিশারী রক্তদান সংগঠনের আহ্বায়ক সৈয়দ আহমদ কবির বুলবুলের সভাপতিত্বে কার্যকরী সদস্য সাংবাদিক

তৈয়বুর রহমান ও রাকিব হাসান জিতুর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আ’লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপি,

উদ্বোধক জাঙ্গালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান গাজী সারওয়ার হোসেন, পতাকা উত্তোলন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির, বিশেষ অতিথি ছিলেন-উপজেলা চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ, ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড,

মাকসুদ উল আলম খান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ ছাদেকুর রহমান আকন্দ, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক এ বি এম আমজাদ হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন খান, ইউপি সদস্য ফারুক খান, প্রতিষ্ঠাতা নূন আকন্দ, নাসিম, সদস্য নাসির, নাদিয়া, মোরাদ, শিপন, রাসেল প্রমুখ। দ্বিতীয় পর্বে স্বেচ্ছাসেবীদের পরিচিতি ও অতিথিদের আলোচনা শেষে সন্ধ্যা রাতে আগত স্বেচ্ছাসেবীদের সম্মাননা ক্রেস্ট ও টি-শার্ট বিতরণ করা হয়।

প্রধান অতিথি মেহের আফরোজ চুমকি এমপি বলেন- আমি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত তখন সন্ধানী নামের একটি ব্লাড ডোনেট সংগঠন আমাকে রক্তদান সম্পর্কে অবগত করে।                                                                         সেই থেকে আমিও উদ্বুদ্ধ হয়ে মা-বাবাকে না বলে প্রথম বার রক্ত দেই। যুবসমাজের কেউ যদি ভালো কাজে এগিয়ে আসে, তখন আমি তার পরিচয় জানার চেষ্টা করি না।

আপনাদের সবাইকে আরও সচেতন হতে হবে। আপনাদের বাবা-মা, ভাই-বোন ও দেশের স্বার্থে সবাইকে সুরক্ষিত থাকার জন্য নিয়মিত মাক্স পড়তে হবে। অল্প কিছুদিন ধৈর্য্য ধরেন ইনশাআল্লাহ ভ্যাকসিন আসবে এবং ভ্যাকসিন আসলে বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষকে ভ্যাকসিন পাবে।

দেশকে উন্নত করতে হলে কোন কাজকে ছোটো মনে করা যাবে না। গণতন্ত্রের জন্য অনেক দলের দরকার সেই দল হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দল, সঠিক দেশ প্রেমিকের দল। যুব সমাজ যারা মানুষকে বাঁচাতে রক্ত দেয়। তারা কখনো খারাপ হতে পারে না এটা আমি বিশ্বাস করি। আসুন আমরা সুন্দরের জন্য কাজ করি।

Print Friendly, PDF & Email